ঢাকা      শুক্রবার, ২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০, ৯ আশ্বিন ১৪২৭
IMG-LOGO
শিরোনাম

দ্রুত ওজন বাড়ানোর উপায়!

IMG
27 August 2020, 12:39 PM

লাইফস্টাইল ডেস্ক, বাংলাদেশ গ্লোবাল: আমাদের সবারই ওজন আসলে ভারসাম্যপূর্ণ থাকা প্রয়োজন কিন্তু ওজন কমানো যেমন কঠিন ঠিক তেমনি কঠিন ওজন বাড়ানো!

স্বাস্থ্যই সকল সুখের মূল। আমাদের বর্তমান জীবনের অন্যতম একটি সমস্যা হলো স্থূলতা। ডায়াবেটিসের মতো স্থূলতা বহুরোগের কারণ হয়ে দাঁড়ায়। তাই স্বাস্থ্যসচেতন মানুষ ওজন কমানোর দৌড়-ঝাঁপ শুরু করেন। আমাদের সবারই ওজন আসলে ভারসাম্যপূর্ণ থাকা প্রয়োজন কিন্তু ওজন কমানো যেমন কঠিন ঠিক তেমনি কঠিন ওজন বাড়ানো।

ওজন কম হওয়ার কারণ

বিভিন্ন কারণে ওজন কম হতে পারে। অনিয়মিত খাদ্যাভ্যাস, জেনেটিক কারণ, মানসিকস্বাস্থ্য সমস্যা, ডায়রিয়া, ক্যান্সার, ডায়বেটিস, এইডস, হাইপারথাইরয়েডিজম, আর্থ্রাইটিস, যক্ষা, কিডনির সমস্যা, ফুসফুসের সমস্যা, ড্রাগ নেওয়া ইত্যাদি। এছাড়া বয়সের জন্যও ওজন কম-বেশি হয়ে থাকে। ওজন বাড়ানোর ক্ষেত্রে সর্বপ্রথম এদিকগুলো লক্ষ্য রাখতে হবে।

আসুন জেনে নেই ওজন বৃদ্ধি করার সহজ কিছু উপায়ঃ

(১) ব্যায়াম করা

অনেকেই ভেবে থাকেন ওজন কমাতেই ব্যায়াম প্রয়োজন কিন্তু এই ধারণা মোটেও ঠিক না। ওজন কমাতে যেমন ব্যায়াম প্রয়োজন ঠিক তেমনি ওজন বাড়াতেও ব্যায়াম করা খুবই প্রয়োজন। এক্ষেত্রে শুধু দৌড়-ঝাঁপই যথেষ্ট না। দরকার প্রতিদিন নিয়ম করে জিম করা। জিমে অভিজ্ঞ ট্রেইনার থাকে। আপনার ওজন ও চেহারা দেখে তিনিই আপনাকে বলে দেবেন কোন ব্যায়াম আপনার করতে হবে।

(২) বারবার খাবার গ্রহণ

বারবার খাবার গ্রহণ প্রতিটি মানুষেরই করা উচিৎ। প্রতি ২ ঘণ্টা অন্তর অল্প করে কিছু খেতে হবে। কিন্তু যারা ওজন বৃদ্ধি করতে চাচ্ছেন তাদের ২ ঘণ্টা পরপর বেশি করে খেতে হবে। এসময় আপনি দুধ, দই, ফল, ছানা ইত্যাদি দিয়েই পূরণ করতে পারেন। এতে আপনার শরীরে পুষ্টির পাশাপাশি ওজনও বৃদ্ধি পাবে। এটি মোটা হওয়ার সবচেয়ে সহজ উপায়।

(৩) খাবারে রাখুন কার্বোহাইড্রেড

ওজন বৃদ্ধিতে কার্বোহাইড্রেড খুবই প্রয়োজন। খাবারের তালিকায় কার্বোহাইড্রেড অবশ্যই রাখবেন। ভাত ও রুটি কার্বোহাইড্রেডের প্রধান উৎস। তাই প্রতিদিন অন্তত ২ বার কার্বোহাইড্রেড খাবেন। ভাত ও রুটি কার্বোহাইড্রেডের প্রধান উৎস তার মানে এই নয় যে বেশি বেশি খাবেন। আপনাকে অতিরিক্ত ফ্যাটের দিকেও লক্ষ্য রাখতে হবে। তাই প্রতিদিন কার্বোহাইড্রেড খাবেন পরিমিত কিন্তু সাধারণের তুলনায় কিছুটা বেশি। মোটা হওয়ার সহজ উপায়গুলোর মধ্যে এটি অন্যতম।

(৪) বেশি ক্যালোরি গ্রহণ

ওজন কমানোর ক্ষেত্রে আমরা বেশি ক্যালোরি বার্ন ও কম ক্যালোরি গ্রহণ করি। কিন্তু এই ক্ষেত্রে উল্টো হবে যতটুকু ক্যালোরি বার্ন করবেন তার দ্বিগুণ ক্যালোরি গ্রহণ করতে হবে। ওজনবৃদ্ধির জন্য শরীরের চাহিদার তুলনায় বেশি ক্যালোরি নিন। ওজন দ্রুত বৃদ্ধি করতে চাইলে দিনে ৬০০-৭০০ ক্যালোরি বেশি গ্রহণ করতে হবে আর যদি ওজন আস্তে আস্তে বাড়াতে চান তাহলে প্রতিদিন ৪০০-৫০০ ক্যালোরি বেশি গ্রহণ করতে হবে। এভাবে এক সপ্তাহ করলেই আপনার ওজন বৃদ্ধি পাবে।

(৫) সঠিক প্রোটিন গ্রহণ

ওজন বৃদ্ধি করতে শুধুমাত্র ক্যালোরিই যথেষ্ট না। ক্যালোরির পাশাপাশি সঠিক প্রোটিন গ্রহণ করতে হবে। সঠিক প্রোটিন গ্রহন না করলে ক্যালোরি বাড়তি ফ্যাটের কারণ হয়ে দাঁড়াবে। তাই প্রতিদিনের খাবারের তালিকায় প্রোটিন জাতীয় খাবার যেমন ডিম, ডাল ও দুধ অবশ্যই রাখবেন।

(৬) ড্রাই ফ্রুটস খাবেন

ড্রাই ফ্রুটসে আছে প্রচুর ক্যালোরি ও ফ্যাট যা ওজন বৃদ্ধিতে অনেক কাজে দেবে। প্রতিদিন ঘুম থেকে উঠেই ২টি কাজু ও ২টি কিসমিস খাবেন। এইটা কোনভাবেই ভুলবেন না। আর সকালের নাস্তায় রাখুন আমন্ড বা পেস্তা। ওজন বৃদ্ধিতে আপনার ডায়েট চার্টে বাদামের পরিমাণ বেশি রাখুন। এভাবে নিয়ম মেনে ড্রাই ফ্রুটস খেলে দেখবেন এক মাসের মধ্যেই আপনার ওজন বৃদ্ধি পাচ্ছে।

(৭) টেনশনমুক্ত থাকুন

সব সমস্যার সবচেয়ে বড় কারণ হচ্ছে টেনশন। ওজনবৃদ্ধিতে যেমন টেনশনমুক্ত থাকা প্রয়োজন ঠিক তেমনি ওজন কমাতেও টেনশনমুক্ত থাকা খুবই আবশ্যক। আজকাল টেনশনমুক্ত থাকা খুবই কঠিন তাও চেষ্টা করবেন যতটা সম্ভব টেনশনমুক্ত থাকার।

(৮) ঘুম

শরীর ঠিক রাখতে ঘুম খুবই প্রয়োজন। প্রতিদিন ৮ ঘণ্টা অবশ্যই ঘুমাতে হবে। এর থেকে কম হওয়া যাবে না। এছাড়া ঘুম থেকে উঠে প্রতিদিন নিয়ম করে ইয়োগা বা যোগাসন করুন। এতে আপনার ওজন দ্রুত বৃদ্ধি পাবে।

(৯) ঘুমানোর আগে দুধ-মধু খান

ঘুমোতে যাওয়ার আগে এমন কিছু খেতে পারেন যা বেশ পুষ্টিকর ও ক্যালোরিযুক্ত। কারণ সেটা ঘুমিয়ে পড়ছেন বলে খরচ হচ্ছে না এবং পুরোরাত আপনার শরীরে ক্যালোরির কাজ করবে এবং ওজন বৃদ্ধি করবে। তাই প্রতিদিন ঘুমানোর আগে দুধ ও মধু মিশিয়ে খান। এটি ওজনবৃদ্ধিতে পরীক্ষিত ও মোটা হওয়ার সহজ উপায়।

(১০) বাইরের খাবার

সচরাচর বাইরের খাবার খেতে আমরা নিষেধ করে থাকি কিন্তু ওজন বৃদ্ধিতে বাহিরের খাবার যেমন আইসক্রিম, কোল্ড ড্রিঙ্কস, পেস্ট্রি, বার্গার ইত্যাদি খাবার খুবই কার্যকরী। তাই আপনি চাইলে এগুলো খেতে পারেন কিন্তু তা হবে পরিমাণমতো। আপনার প্রতিদিনের ডায়েটে চকলেট ও চিজও রাখতে পারেন।

ওজন বাড়ানোর জন্য খাদ্যতালিকায় রাখুন নিম্নলিখিত খাবারগুলো-

১) তাড়াতাড়ি ওজন বাড়াতে প্রত্যেকদিন চর্বিযুক্ত মাছ খান। আরও ভালো ফল পেতে মাছ, মাখন ও অলিভ অয়েলে ভেজে নিন।

২) ওজন বাড়াতে রোজকার ডায়েটে আলু রাখতে ভুলবেন না। আলুতে প্রচুর পরিমানে প্রোটিন, ফাইবার ও ভিটামিন সি থাকে।

৩) ওজন বাড়ানোর জন্য সহজ ও স্বাস্থ্যকর উপায় হল পিনাট বাটার।

৪) রোজ ১০০ গ্রাম করে বাদাম খান। ১০০ গ্রাম বাদামে ৫০০ থেকে ৬০০ ক্যালোরি থাকে। এছাড়া ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড, প্রোটিন, ভিটামিন ই এবং ফাইবার থাকে। ওজন বাড়ানোর জন্য বাদাম খুবই উপযোগী।

৫) ওজন বাড়াতে প্রোটিন, ভিটামিন ডি, স্বাস্থ্যকর কোলেস্টেরলযুক্ত উপাদান হল ডিম।

৬) ওজন বাড়ানোর জন্য রোজ ব্রেকফাস্টে চিজ বা পনির খান।

৭) ঘরোয়া উপায়ে সবচেয়ে তাড়াতাড়ি ওজন বাড়ানোর উপযোগী খাবার হল কলা। তাই প্রত্যেকদিনের ডায়েটে কলা রাখুন।

সাম্প্রতিক খবর জানতে লাইক করুন আমাদের Facebook পেজ অথবা সাবস্ক্রাইব করুন YouTube

সর্বশেষ খবর

আরো পড়ুন