ঢাকা      সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ৫ আশ্বিন ১৪২৮
IMG-LOGO
শিরোনাম

দুই সন্তানের জননীকে ধর্ষণ, সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান গ্রেপ্তার

IMG
14 September 2021, 7:25 PM

নেত্রকোনা, বাংলাদেশ গ্লোবাল: বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণ করার অভিযোগে নেত্রকোনায় সোহরাব হোসেন নামে সাবেক এক ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যানকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ। সদর উপজেলার দরুনবালী বাজার থেকে মঙ্গলবার (১৪ সেপ্টেমর) দিবাগত রাতে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়।

গ্রেপ্তার সোহরাব হোসেন দরুনবালী গ্রামের আব্দুল জব্বারের ছেলে। তিনি কাইলাটি ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান। নির্যাতনের শিকার নারী গতকাল সোমবার রাতে নিজে বাদী নেত্রকোনা মডেল থানায় মামলা দায়ের করেছেন।

নেত্রকোনা মডেল থানা পুলিশ সূত্রে জানা গেছে, নেত্রকোনা সদর উপজেলার মৌজেবালী গ্রামের দুই সন্তানের জননী ভিকটিমের প্রথম স্বামীর সঙ্গে দীর্ঘদিন আগে ছাড়াছাড়ি হয়। পরে আবার তিনি বিয়ে করেন। সেই স্বামীও তাকে ছেড়ে চলে যান। এর পর সাবেক চেয়ারম্যান সোহরাব হোসেন বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে নির্যাতনের শিকার নারীর সঙ্গে শারীরিক সম্পর্ক চালিয়ে যান।

কিন্তু বিয়ের কথা বললেই তালবাহানা শুরু করেন অভিযুক্ত ঐ সাবেক চেয়ারম্যান। সম্প্রতি আবারও বিয়ের কথা বললে ভিকটিমের সঙ্গে কোনও ধরনের সম্পর্ক নেই বলে অস্বীকার করেন অভিযুক্ত চেয়ারম্যান সোহরাব হোসেন।এরই প্রেক্ষিতে গতকাল সোমবার রাতে ভিকটিম নিজে বাদী হয়ে নেত্রকোনা মডেল থানায় একটি মামলা দায়ের করেন।

মামলা দায়েরের পর পরই অভিযান চালিয়ে সদর উপজেলার মৌজেবালী বাজার থেকে গতকাল সোমবার রাতে অভিযুক্তকে গ্রেপ্তার করে। গতকাল মঙ্গলবার বিকেলে তাকে আদালতে হাজির করা হয়।

নেত্রকোনা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা খন্দকার (ওসি) শাকের আহমেদ ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, ‘ধর্ষণের অভিযোগ এনে এক নারী গতকাল সোমবার রাতে কাইলাটি ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান সোহরাব হোসেনের নামে মামলা করেন। মামলা করার পরপরেই অভিযুক্ত ব্যক্তিকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে আজ মঙ্গলবার বিকেলে তাকে আদালতে পাঠানো হয়। আদালত তার জামিন নাঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

বাংলাদেশ গ্লোবাল/এমএন

সর্বশেষ খবর

আরো পড়ুন