ঢাকা      সোমবার, ২৭ মার্চ ২০২৩, ১৩ চৈত্র ১৪২৯
IMG-LOGO
শিরোনাম

গ্রেপ্তারি পরোয়ানার বিরুদ্ধে ফের আদালতে ইমরান খান

IMG
17 March 2023, 3:17 PM

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক, বাংলাদেশ গ্লোবাল: গ্রেপ্তারি পরোয়ানার বিরুদ্ধে ফের আদালতের দ্বারস্থ হয়েছেন পাকিস্তানের সাবেক প্রধানমন্ত্রী ও পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) চেয়ারম্যান ইমরান খান। শুক্রবার (১৭ মার্চ) ইসলামাবাদ হাইকোর্টে নতুন করে একটি আবেদন করেছেন তিনি।

শুক্রবার এক প্রতিবেদনে এই তথ্য জানিয়েছে পাকিস্তানি সংবাদমাধ্যম দ্য নিউজ ইন্টারন্যাশনাল।

প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, আলোচিত তোষাখানা মামলায় জারি করা গ্রেপ্তারি পরোয়ানা স্থগিত করার জন্য বৃহস্পতিবার ইমরানের একটি আবেদন খারিজ করে দেয় পাকিস্তানের একটি জেলা ও দায়রা আদালত। মূলত নিম্ন আদালতের সেই আদেশকে চ্যালেঞ্জ করেই শুক্রবার ইসলামাবাদ হাইকোর্টে আবেদন করেছেন সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী।

দ্য নিউজ ইন্টারন্যাশনাল বলছে, পাকিস্তান তেহরিক-ই-ইনসাফ (পিটিআই) প্রধান ইমরানের পক্ষে খাজা হারিস শুক্রবার এই পিটিশনটি দায়ের করেন। মূলত আদালতে হাজির হওয়ার নির্দেশ দেওয়া হলেও সেই আদেশকে অমান্য করে লাহোরে নিজের বাসভবন জামান পার্কে অবস্থান করছেন ইমরান।

সংবাদমাধ্যম বলছে, আদালতে উপস্থিত হতে ব্যর্থ হওয়ায় পিটিআই প্রধান ইমরানের বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্য গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করা হলে বৃহস্পতিবার তা স্থগিত করার আবেদন করা হয়। তবে অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ জাফর ইকবাল পিটিআই প্রধানের এই আবেদন প্রত্যাখ্যান করেন।

মূলত ইসলামাবাদ হাইকোর্ট ইমরানের অনুরোধ প্রত্যাখ্যান করার পরে পাকিস্তানের সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী স্থানীয় আদালতের দ্বারস্থ হয়েছিলেন। কারণ ইমরানকে পরোয়ানা জারি করা আদালত থেকেই নিজের আবেদন মঞ্জুরের নির্দেশ দিয়েছিলেন উচ্চ আদালত।

এদিকে শুক্রবার নতুন আবেদনে পাকিস্তানের সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী দায়রা আদালতে দেওয়া তার অঙ্গীকার গ্রহণ করার জন্য আদালতকে অনুরোধ করেছেন এবং আগামীকাল (শনিবার) তিনি আদালতে হাজির হবেন বলে আশ্বাস দিয়েছেন।

একইঙ্গে শুক্রবার জরুরি ভিত্তিতে আবেদনটির ফয়সালা করার জন্যও ইসলামাবাদ হাইকোর্টকে আহ্বান জানিয়েছেন ইমরান।

আদালতে দায়েরকৃত পিটিশনে বলা হয়েছে, ‘(...) এই আদালত শুধুমাত্র আবেদনকারীর উপস্থিতির জন্য জামিন অযোগ্য গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করেছে। আবেদনকারী এই আদালতে নির্দিষ্ট তারিখে অর্থাৎ ১৮ মার্চ তারিখে হাজির হতে প্রস্তুত এবং ইচ্ছুক। তিনি এই বিষয়ে অঙ্গীকার করেছেন।’

এতে আরও বলা হয়েছে, ‘আইনগতভাবে জামিন অযোগ্য গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারি করার উদ্দেশ্য হলো আদালতে আসামির উপস্থিতি নিশ্চিত করা এবং (ইমরানের সর্বশেষ) অঙ্গীকারটি ওয়ারেন্টের উদ্দেশ্য পূরণ করেছে। আবেদনকারীকে গ্রেপ্তার করা হলে তা কোনও কার্যকর উদ্দেশ্য পূরণ করবে না এবং কোনও কারণ ছাড়াই তিনি (ইমরান খান) অপমানিত হবেন।’

উল্লেখ্য, পাকিস্তানের নির্বাচন কমিশনের দায়ের করা তোষাখানা মামলার অভিযোগ গঠনের জন্য নির্ধারিত দিন ছিল গত ২৮ ফেব্রুয়ারি। কিন্তু সেদিন ইমরান খান আদালতে উপস্থিত না থাকায় অভিযোগ গঠন করা যায়নি।

তারপর অভিযোগ গঠনের জন্য আরও ৪ বার দিন নির্ধারণ করেন আদালত; কিন্তু একবারও ইমরান হাজির না হওয়ায় গত ১৩ মার্চ তার বিরুদ্ধে জামিন অযোগ্য পরোয়ানা জারি করেন বিচারক।


বাংলাদেশ গ্লোবাল/এইচএম

সবশেষ খবর এবং আপডেট জানার জন্য চোখ রাখুন বাংলাদেশ গ্লোবাল ডট কম-এ। ব্রেকিং নিউজ এবং দিনের আলোচিত সংবাদ জানতে লগ ইন করুন: www.bangladeshglobal.com

সর্বশেষ খবর

আরো পড়ুন