ঢাকা      রবিবার, ২১ এপ্রিল ২০২৪, ৭ বৈশাখ ১৪৩১
শিরোনাম

হুথির হামলায় মালবাহী জাহাজ থেকে নিঃসৃত হচ্ছে তেল

IMG
25 February 2024, 7:11 AM

ইন্টারন্যাশনাল ডেস্ক, বাংলাদেশ গ্লোবাল: যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক বাহিনী শনিবার জানায়, এ মাসের গোড়ার দিকে ইরান সমর্থিত ইয়েমেনি হুথি বিদ্রোহীরা বেলাইজ পতাকা সম্বলিত জাহাজে আক্রমণের কারণে ১৮ মাইল জুড়ে সমুদ্রে তেলের আস্তরণ পড়ে। জাহাজটির সার বহনকারী মালবাহী অংশ থেকে তেল পড়তে পারে বলে সতর্ক করে দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্রের সামরিক বাহিনী ।

ব্রিটেনে রেজিস্ট্রিকৃত লেবাননীদের দ্বারা পরিচালিত মালবাহী জাহাজ রুবিমার যখন বাব এল মান্দেব প্রণালী দিয়ে যাচ্ছিল, তখন ১৮ ফেব্রুয়ারি জাহাজটির উপর হামলা চালানো হয় বলে জানিয়েছে যুক্তরাষ্টের সেন্ট্রাল কমান্ড(সেন্টকম)। এই প্রণালীটি লোহিত সাগর ও এডেন উপসাগরকে সংযুক্ত করেছে।

এই ক্ষেপণাস্ত্র আক্রমণের কারণে জাহাজের ক্রুরা জাহাজটি পরিত্যাগ করতে বাধ্য হন। জাহাজটি সংযুক্ত আরব আমিরাতের খোরফাকান বন্দর থেকে বুলগেরিয়া যাচ্ছিল। সেন্টকম এক বিবৃতিতে জানিয়েছে ঐ জাহাজে ৪১ হাজার টনেরও বেশি সার ছিল।

সেন্টকমের ঐ বিবৃতিতে বলা হয়েছে যে, জাহাজটি প্রচুর ক্ষতির শিকার হয়েছে এবং সতর্ক করে দিয়েছে জাহাজটির সার লোহিত সাগরে ছড়িয়ে পড়লে পরিবেশ আরও দুর্যোগের মুখোমুখি হবে। সেন্টকম বলছে, “হুথিরা তাদের এই সব নির্বিচার আক্রমণের যে আঞ্চলিক প্রতিক্রিয়া হচ্ছে, তাকে অবজ্ঞা করা অব্যাহত রেখেছে। এই প্রতিক্রিয়াগুলির মধ্যে রয়েছে মৎস্য শিল্প, উপকুলীয় সমাজ এবং খাদ্য সরবরাহের প্রতি হুমকি।”

দ্য এসোসিয়েটেড প্রেস, স্যাটেলাইট ছবির সুত্রে জানিয়েছে যে, আঘাত প্রাপ্ত জাহাজ থেকে লোহিত সাগরে তেল চুঁয়ে চুঁয়ে পড়ছে। ইয়েমেনের আন্তর্জাতিকভাবে স্বীকৃত সরকার শনিবার অন্যান্য রাষ্ট্র এবং জাহাজ চলাচল বিষয়ক সুরক্ষা সংস্থাগুলোকে সমুদ্রের উপর তেলের আস্তরণ পড়ার ঘটনার দ্রুত সমাধান করার আহ্বান জানিয়েছে।

ভিন্ন এক খবরে শুক্রবার সেন্টকম জানিয়েছে, তারা ইয়েমেনে হুথির দখল করা এলাকাগুলিতে হামলা চালিয়েছে এবং এতে সাতটি চলমান জাহাজ বিধ্বংসী ক্রুজ ক্ষেপণাস্ত্রকে ধ্বংস করা হয়েছে। এই সব ক্ষেপণাস্ত্র লোহিত সাগরের দিকে নিক্ষেপ করার জন্য প্রস্তুত রাখা হয়েছিল।

সবশেষ খবর এবং আপডেট জানার জন্য চোখ রাখুন বাংলাদেশ গ্লোবাল ডট কম-এ। ব্রেকিং নিউজ এবং দিনের আলোচিত সংবাদ জানতে লগ ইন করুন: www.bangladeshglobal.com

সর্বশেষ খবর

আরো পড়ুন