ঢাকা      রবিবার, ২৩ জুন ২০২৪, ৮ আষাঢ় ১৪৩১
শিরোনাম

পুলিশের গুলিতে নিহত পুলিশ, যা বললেন আইজিপি

IMG
09 June 2024, 11:19 AM

ঢাকা, বাংলাদেশ গ্লোবাল: রাজধানীর বারিধারা ডিপ্লোমেটিক জোনে এক পুলিশ সদস্য কী কারণে আরেক পুলিশ সদস্যকে গুলি করে হত্যা করেছে, তা জানতে পুলিশ তদন্ত শুরু করেছে বলে জানিয়েছেন পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল মামুন।

শনিবার দিবাগত ২ টা ৩০ মিনিটে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে আইজিপি এ তথ্য জানান। এসময় ডিএমপি কমিশনার হাবিবুর রহমানসহ পুলিশ সদর দপ্তর ও ডিএমপির ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে রাত পৌনে ১২টার দিকে বারিধারা কূটনীতিক এলাকায় অবস্থিত ফিলিস্তিন দূতাবাসের সামনে ঘটে হত্যাকাণ্ডটি।

ঘটনার প্রায় দুই ঘণ্টা পর অভিযুক্ত কাউসারকে আটক করা হয়।

চৌধুরী আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, কাউসার নামে এক পুলিশ কনস্টেবলের গুলিতে আরেক কনস্টেবল মনিরুল মারা যায় ও দুজন পথচারী গুলিবিদ্ধ হয়। নিহত মনিরুলকে উদ্ধার করে সোহরাওয়ার্দী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে এবং আহতরা ইউনাইটেড হসপিটালে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

আইজিপি বলেন, ঘটনার পর অভিযুক্ত পুলিশ সদস্যকে আটক করা হয়েছে। ঘটনাস্থল থেকে ২০ রাউন্ড চাইনিজ গুলির খোসা উদ্ধার করা হয়েছে। অপরাধ যেই করুক- এ বিষয়ে ছাড় দেওয়ার কোনো সুযোগ নেই। আমরা অভিযুক্তকে জিজ্ঞাসাবাদ করছি।
কেন, কী কারণে এমন ঘটনার সৃষ্টি হলো- বিস্তারিত জানার চেষ্টা চলছে।

তিনি বলেন, এখান থেকে আমরা আহতদের হাসপাতালে দেখতে যাব। তাদের কাছ থেকেও জানার চেষ্টা করব- তারা কী দেখেছে, কেন এমন ঘটনা ঘটল। পুলিশ শৃঙ্খলাবাহিনী, তারা কীভাবে এ ধরণের ঘটনা ঘটল- এমন প্রশ্নের উত্তর খোঁজা হচ্ছে।

আগে এ ধরনের নিরাপত্তার জন্য নিয়োজিত পুলিশ সদস্যের ডিউটি সময় কম ছিল। এখন ৮ ঘণ্টা ডিউটি করার পর ৮ ঘণ্টা বিশ্রাম, তারপর আবার ডিউটি- এ কারণে হতাশা তৈরি হয়ে থাকতে পারে। হতাশা থেকে এমন ঘটনা ঘটাতে পারে কিনা- প্রশ্নের জবাবে আইজিপি বলেন, আমরা সব বিষয় দেখার চেষ্টা করছি। কেন ও কী কারণে পুলিশ সদস্য এমন ঘটনা ঘটিয়েছে। এসব জানার চেষ্টা চলছে। প্রকৃত ঘটনা জানার পর বিস্তারিত জানানো হবে।

তার আগে রাত পৌনে ১২টার দিকে ফিলিস্তিনি দূতাবাসের সামনে দায়িত্ব থাকা পুলিশ কনস্টেবল কাউসার তার আরেক সহকর্মী কনস্টেবল মনিরুলকে গুলি করে হত্যা করে।

এসময় পুলিশ সদস্য কাউসারের এলোপাতাড়ি ছোড়া গুলিতে জাপানি দূতাবাসের ড্রাইভার সাজ্জাদ হোসেনের শরীরে তিনটি গুলি লাগে। একই সময়ে সড়কে সাইকেল চালিয়ে যাওয়ার সময় মনির নামে এক পথচারী গুলিবিদ্ধ হয়। আহত দুজন ইউনাইটেড হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আছে।

ঘটনাস্থলে পুলিশের বিশেষ বাহিনী সোয়াটসহ বিপুল পরিমাণ পুলিশ মোতায়েন করা হয়। তবে অভিযুক্ত পুলিশ কনস্টেবল কাউসার বন্দুক তাক করে রাখায় প্রায় দুই ঘণ্টা তার সামনে যেতে পারেনি অন্য পুলিশ সদস্যরা।


বাংলাদেশ গ্লোবাল/এইচএম

সবশেষ খবর এবং আপডেট জানার জন্য চোখ রাখুন বাংলাদেশ গ্লোবাল ডট কম-এ। ব্রেকিং নিউজ এবং দিনের আলোচিত সংবাদ জানতে লগ ইন করুন: www.bangladeshglobal.com

সর্বশেষ খবর

আরো পড়ুন